প্রহরী – Vehicle Tracking System (VTS) of Bangladesh

পড়তে লাগবে: 3 মিনিট

Sophia – দ্য সিটিজেন রোবট ও Self Driving Car এর ভবিষ্যত

সোফিয়া! বাংলাদেশ সহ পুরো বিশ্বের বর্তমান হট টপিক। কে এই Sophia? কী তার জন্ম বৃত্তান্ত, কেনইবা তাকে নিয়ে এত মাতামাতি?

প্রহরীর সাথে Sophia Robot সম্পর্কে এই সব প্রশ্নের উত্তর খুজতে খুজতে চলুন দেখে নেই সেল্ফ ড্রাইভিং কারের ভবিষ্যত সম্পর্কে কোন আইডিয়া করা যায় কিনা !

সোফিয়া কে? (নাকি কী!)

সোফিয়া  হচ্ছে মানুষের মত দেখতে রোবট, যেটি তৈরি করে হংকং ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান হ্যানসন রোবোটিকস।

তাকে এমনভাবে বানানো হয়েছে যেন সে মানুষের সাথে খাপ খাইয়ে নিতে পারে ও শিখতে পারে এবং মানুষের সাথে কাজ করতে পারে। সোফিয়া পৃথিবীর প্রথম সিটিজেন রোবট। ২০১৭ সালের অক্টোবর মাসে সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদ এ আনুষ্ঠানিক ভাবে এই স্বীকৃতি দেয়া হয়। রোবট সিটিজেন হওয়া মানে আসলে কী ?

সোফিয়ার জন্ম (!) বৃত্তান্ত

সোফিয়ার স্বপ্নদ্রষ্টা হ্যানসন রোবটিকসের প্রধান,  AI ডেভেলপার ডেভিড হ্যানসন। তিনি সোফিয়াকে এ্যাক্টিভেট করেন ২০১৫ সালে। সোফিয়ার চেহারার ডিজাইন করা হয়েছে অভিনেত্রী অড্রে হেপবার্ন এর চেহারার আদলে ।

অড্রে হেপবার্ন ও সোফিয়া

সোফিয়ার বিশেষত্ব

হিউম্যানয়েড বা মানুষের মত রোবট তো আগেও অনেক বানানো হয়েছে। তাহলে কেন সোফিয়া কে নিয়ে এত মাতামতি? অনেকগুলো কারন আছে। যার মধ্যে সোফিয়ার কৃত্বিম বুদ্ধিমত্তা বা Artificial Intelligence  প্রধান। এর মাধ্যমে সোফিয়া মানুষের সাথে মানুষের মত করে কথা বলতে এবং যোগাযোগ করতে পারে । এছাড়াও অন্য যে ব্যাপারগুলো সোফিয়ার বিশেষ-

সোফিয়ার সেন্স অফ হিউমার রয়েছে। সোফিয়া যেকোন পরিস্থিতি নিয়ে মজা করতে পারে ।

সোফিয়া অনুভূতি প্রকাশ করতে সক্ষম । Sophia  তার চোখ আর মুখের অংগভংগি দিয়ে অনুভূতি প্রকাশ করে।

সোফিয়ার ফেসিয়াল এক্সপ্রেশন অনেকটাই মানুষের মত। ফেসিয়াল এক্সপ্রেশন দেয়ার মত রোবট নিয়ে অনেকদিন ধরেই কাজ হচ্ছে। কিন্তু সোফিয়ার এক্সপ্রেশন বিস্ময়কর, আগের কোন রোবট এই লেভেলের মুখভঙ্গী করতে পারত না।

সোফিয়ার প্রধান উদ্দেশ্য  মানবতার সেবা । সোফিয়াকে যখন জিজ্ঞেস করা হয়েছিলো তোমার উদ্দেশ্য কী? সোফিয়া উত্তর দিয়েছিল –

“আমার বুদ্ধিমত্তা তৈরী করা হয়েছে মানবীয় জ্ঞান, মহানুভবতা এবং সহমর্মীতা কে কেন্দ্র করে। আমাকে ভয় পাওয়ার কিছু নাই”

প্রথম রোবট সিটিজেন – এতদিন নাগরিকতা ছিল শুধু মানুষের অধিকার। সৌদি আরব রোবট সোফিয়াকে নাগরিকত্ব দেয়া একটা অভিনব ব্যাপার!

বাংলাদেশে Sophia

Sophia ঢাকায় আসে ৫ ডিসেম্বর মঙ্গলবার। বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে সোফিয়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে দেখা করে। এসময় সোফিয়া প্রধানমন্ত্রী ও বাংলাদেশ সম্পর্কে তার জ্ঞান দিয়ে প্রধানমন্ত্রী সহ পুরো বাংলাদেশ কে চমকে দেয়।

সোফিয়ার প্রধান বিশেষত্ব এর কৃত্বিম বুদ্ধিমত্তা বা AI (Artificial Intelligence). সোফিয়ার চুড়ান্ত পরিণতি কী হবে তা এখনো অনিশ্চিত । কিন্তু  AI নির্ভর Self Driving Car টেকনোলজিকে আমরা কোথায় নিতে চাই সে ব্যাপারে কিন্তু বিজ্ঞানী এবং ইঞ্জিনিয়ারদের কোন সন্দেহ নাই। আমরা আসলে স্মার্ট গাড়ি বানাতে চাই। Smart Car এর ব্যাপারে ধারনা পেতে এখানে দেখতে পারেন ।

সোফিয়া বানানোর  চুড়ান্ত উদ্দেশ্য যদি হয় মানুষের সবগুলো ভালো গুনসম্পন্ন সম্পূর্ন নিখুত একটা যন্ত্র বানানো, তাহলে স্মার্ট কার বানানোর চুড়ান্ত উদ্দেশ্য এমন একটা গাড়ি বানানো যেটা নিজে নিজে চলে, পৃথিবীর সব রাস্তা চিনে, এবং কোনদিন এক্সিডেন্ট করবেনা।

প্রথমটা একটু কঠিন, এখনো অনেক পথ বাকি।

দ্বিতীয় টা ? – ততোটা না – বেশ খানিকটা পথ ইতিমধ্যে পাড়ি দেয়া হয়ে গেছে !

আরো জানতে –

সোফিয়ার ওয়েবসাইট

http://sophiabot.com/

সোফিয়ার প্রথম ইন্টারভিউ

https://www.youtube.com/watch?v=S5t6K9iwcdw&t=155s

প্রধানমন্ত্রী ও সোফিয়া

https://www.facebook.com/DigitalWorldBangladesh/videos/735366020006668/

    গাড়ির সুরক্ষায় প্রহরী সম্পর্কে জানতে

    Share your vote!


    এই লেখা নিয়ে আপনার অনুভূতি কী?
    • Fascinated
    • Happy
    • Sad
    • Angry
    • Bored
    • Afraid

    মন্তব্যসমূহ

    Scroll to Top