প্রহরী – Vehicle Tracking System (VTS) of Bangladesh

পড়তে লাগবে: 3 মিনিট

জনপ্রিয় ফুটবলার ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর বিলাসবহুল ৭টি গাড়ি (প্রথম-পর্ব)

মানুষের অনেক রকম বিচিত্র টাইপের শখ থাকে। সেক্ষেত্রে ব্যক্তি বিশেষে হরেক রকম শখের ভিন্নতাও পরিলক্ষিত হয়। ধরুন কেউ হয়তো পশুপাখি পুষতে, কেউবা দুষ্প্রাপ্য জিনিসপত্র কিনতে কিংবা কেউ আবার পুরনো দিনের কয়েন, ডাকটিকিট ইত্যাদি সংগ্রহ করতে পছন্দ করেন। তেমনি অন্যান্যদের মতো খ্যাতিমান তারকাদেরও বিভিন্ন প্যাশন কিংবা বাহারি শখ থেকে থাকে।

তেমনই একজন ফুটবল তারকা হলেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। বিশ্বসেরা এই প্লেয়ারের অনেক শখের মধ্যে একটি হচ্ছে নিত্য নতুন কার কেনা। এক কথায় বলতে গেলে তিনি একজন ভীষণ গাড়িপ্রেমী মানুষ। তিনি তার কারগুলো ভক্তদের সামনে উপস্থাপন করতে ভালবাসেন। এছাড়াও সব ধরণের গাড়ি সযত্নে রাখার জন্য তার স্পেশাল গ্যারেজ ব্যবস্থা আছে। এই পর্তুগিজ তারকার সংগ্রহে থাকা   বিলাসবহুল সাতটি গাড়ির কথা আপনাদের জন্য তুলে ধরা হলো।

Phantom Rolls Royce    

ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর সংগ্রহে থাকা অনন্য একটি কার হল Phantom Rolls Royce। এটা মূলত একটি বিলাসবহুল দামী গাড়ি। যা তৈরি করেছে রোলস রয়েস মোটর কোম্পানি। এটি বিশ্বের অন্যতম দামি একটি কার হিসেবে বিবেচিত। আর তাইতো এই দামি গাড়িটি কিনতে তার ব্যয় করতে হয়েছে দুই লক্ষ ডলার। এই কারের ইন্টেরিয়র ডিজাইন সম্পূর্ণ হাতে তৈরি করা হয়েছে। ফলে তাতে স্বাতন্ত্র্য বৈশিষ্ট্য পরিলক্ষিত হয়েছে। এছাড়াও এই গাড়িটিতে ব্যবহৃত হয়েছে শক্তিশালী ভি-১২৬৭৪৯ সিসি ইঞ্জিন।

Bugatti Chiron

ক্রিস্টিয়ানোর আধুনিক গ্যারেজে জায়গা করে নেয়া আরেকটি গাড়ি হল Bugatti Chiron। এটা একটি দুই সীটের মিড ইঞ্জিন বিশিষ্ট কার। এই দুষ্প্রাপ্য গাড়ি তেমন একটা উৎপাদিত হয় নাই। ফ্রান্সের বুগাট্টি কোম্পানির এই আপডেট ভার্সন কিনতে তার ব্যয় করতে হয়েছে ২.৪ মিলিয়ন ডলার। এই কার ড্রাইভ করে তিনি প্রায় ৪০০ কিলোমিটার পর্যন্ত গতি তোলার রেকর্ডও করেছেন।

BMW M6

রোনালদোর আরেকটি বিলাসবহুল গাড়ি হলো BMW M6। বিখ্যাত বিএমডাব্লিউ কার কোম্পানি এটাকে তৈরি করেছে। এবং তারা একে বিশেষভাবে ডেভেলপও করেছে। এই গাড়িটি সর্বোচ্চ পারফর্মেন্স যুক্ত সিক্স সিরিজের আপডেট ভার্সন। ২০০৬ সালের জনপ্রিয় এই গাড়িটি কিনতে ক্রিস্টিয়ানোর ব্যয় করতে হয়েছে ১০২০০০ ডলার।

Ferrari 599 GTB Fiorano  

Ferrari 599 GTB Fiorano একটি বিলাসবহুল দামী কার। এটি বিখ্যাত ফেরারি কোম্পানির তৈরি। এই গাড়িটি কিনতে রোনালদোর খরচ হয়েছে ৩১০০০০ মার্কিন ডলার। গাড়িটি প্রতি ঘণ্টায় একশ কিলোমিটার বেগে চলতে পারে। এটি একটি দুই আসন বিশিষ্ট কার। আকর্ষণীয় ডিজাইনের এই গাড়িটি অনেক বেশি মজবুত এবং টেকসই।

Porsche Cayenne Turbo

ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর সংগ্রহে থাকা এই টাইপের যদিও আরো কয়েকটি গাড়ি আছে। তথাপিও এটা তার আপন বৈশিষ্ট্যে সমুজ্জ্বল। এই গাড়িটি ঘণ্টায় দুইশ আঠারো কিলোমিটার বেগে চলে। Porsche Cayenne Turbo মূলত একটি মিড সাইজ লাক্সারি কার। এটা কিনতে খরচ হয়েছে ৯৬০০০ ডলার। জার্মান কার কোম্পানি পোরসে এটা তৈরি করেছে।

Audi Q7  

এই পর্তুগিজ খেলোয়াড়ের গাড়ির সংগ্রহ অনেক বেশি বৈচিত্র্যময়। তিনি গাড়ি কেনার ক্ষেত্রে দ্রুতগতিময়, আকর্ষণীয় ইন্টেরিয়র, শক্তিশালী পার্টস বা ইঞ্জিনের দিকে বেশি প্রাধান্য দিয়ে থাকেন। তার  গ্যারেজে স্থান করে নেয়া আরেকটি কার হল Audi Q7। এটা একটি মিড সাইজ SUV। জার্মান কার কোম্পানি  অডি  এটি তৈরি করেছে। ২০০৮ সাল কেনা এই গাড়িটির মূল্য পড়েছিল ৫০০০০ ডলার।

Mercedes Benz C220 CDI    

ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর প্রথম দিকের গাড়িগুলোর মধ্যে এটা অন্যতম। তার অন্যান্য কারগুলোর প্রাইজের তুলনায় এটা অনেকটাই সস্তা। তিনি ৪০,০০০ ডলার দিয়ে এটি কিনেছিলেন। এটা একটি কমপ্যাক্ট এক্সেকিউটিভ কার। জার্মান কার কোম্পানি Mercedes Benz এটি বাজারজাত করেছে।

ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর অন্যতম প্যাশন হল হরেক মডেলের গাড়ি সংগ্রহ করা। আর তাইতো এই শখ কিংবা আসক্তির বশেই তিনি নিত্য নতুন ডিজাইনের কারগুলো কিনছেন। যতদূর জানা যায়, তিনি এই পর্যন্ত বিশটিরও অধিক গাড়ি কিনে ফেলেছেন। আর দিন দিন তার গাড়ি সংগ্রহের লিস্ট দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর হচ্ছে।

পরবর্তী পর্বে পড়ুনঃ ফুটবল তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর দ্রুতগতিময় ৭টি গাড়ি (শেষ-পর্ব)

    গাড়ির সুরক্ষায় প্রহরী সম্পর্কে জানতে

    Share your vote!


    এই লেখা নিয়ে আপনার অনুভূতি কী?
    • Fascinated
    • Happy
    • Sad
    • Angry
    • Bored
    • Afraid

    মন্তব্যসমূহ

    Scroll to Top