প্রহরী – Vehicle Tracking System (VTS) of Bangladesh

পড়তে লাগবে: 3 মিনিট

বৃষ্টির সময় নিরাপদে ড্রাইভিং করার ৭টি টিপস (পর্ব-১)

খারাপ আবহাওয়াকে ভালোভাবে বিবেচনায় নিয়ে বৃষ্টির দিনে গাড়ি চালানো উচিত। এসময় ড্রাইভিং করার ক্ষেত্রে নানা অসুবিধার সম্মুখীন হতে হয়। অনেক সময় নানা বিপদজনক পরিস্থিতির উদ্ভব হতে পারে। তাই এসময় ড্রাইভিং করার সময় অনেক বেশি সতর্ক হয়ে চলা উচিত। আপনার সুবিবেচনা আর সাবধানতার ফলে যেকোন দুর্ঘটনা ঘটার হাত থেকে রক্ষা পেয়ে যাবেন। এক্ষেত্রে বৃষ্টির সময় কিছু কিছু সতর্কতা মূলক পদক্ষেপের মাধ্যমে আসন্ন বিপদগুলো এড়ানো যায়। বৃষ্টির মাঝে নিরাপদে গাড়ি চালানোর ক্ষেত্রে ৭টি সতর্কতামূলক টিপস দেখে নিন। আশা করা যায় যা আপনাকে অনাকাঙ্ক্ষিত দুর্ঘটনা ঘটার হাত থেকে রক্ষা করবে।

ধীর গতিতে গাড়ি চালান  

যেকোন আবহাওয়া জনিত সমস্যার সময় গাড়ির গতি পরিস্থিতি অনুযায়ী মানিয়ে নেয়া উচিত। এক্ষেত্রে গাড়ির গতি অবশ্যই কমিয়ে  নেয়া উচিত। যা আমাদের যেকোনও পরিস্থিতিতে মানিয়ে নেয়া সহজ করে তুলবে। সাধারণত ভেজা রাস্তা স্বাভাবিক অবস্থার চেয়ে তিন গুণ বেশি পিচ্ছিল হয়। তাই তখন গাড়ির গতিও তিন গুণ কমিয়ে দেয়া দরকার। ভেজা পিচ্ছিল রাস্তায় গাড়ির গতি না কমালে, যেকোন দুর্ঘটনা ঘটার সম্ভাবনাটাও বেড়ে যায়।

ফোকাস ঠিক রাখুন    

বৃষ্টির মধ্যে গাড়ি চালানোর সময় সর্বদা সতর্ক দৃষ্টি রাখা উচিত। ফোকাস ঠিক না রাখলে যেকোন দুর্ঘটনার সম্মুখীন হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। বিশেষ করে বৃষ্টির সময় যখন রাস্তা অনেক পিচ্ছিল থাকে। আর তখন ফোকাস ঠিক রাখাটা অনেক বেশি জরুরি। এসময়  কোনও কিছু খাওয়া, পড়া,  গল্প করা ইত্যাদি বিষয় থেকে বিরত থাকা উচিত। এছাড়াও মোবাইল, এফএম রেডিও ইত্যাদি  বন্ধ  করে  রাখলে ভাল হয়। ড্রাইভিং করার সময় এসব কিছু আপনার মনোযোগে বিঘ্ন ঘটাতে পারে।

লাইট অন করে রাখুন   

বৃষ্টির দিনে নিকষ কালো মেঘে আকাশ ছেয়ে থাকে। অনেকসময় বৃষ্টির সাথে সাথে চারপাশের পরিবেশ অন্ধকার হয়ে যায়। তখন নিরাপদে গাড়ি চালাতে চাইলে বৃষ্টি নামার সাথে সাথেই হেডলাইট অন করে দেয়া উচিত। আর সেক্ষেত্রে তখন দিন বা রাত যে সময়ই হোক না কেন। মূলত তখন দুটো কারণে হেডলাইট  জ্বালাতে হয়। এক হচ্ছে যে অন্য গাড়ির ড্রাইভাররা যাতে আপনাকে ঠিকভাবে দেখতে পায়। এবং দুই হচ্ছে ধোঁয়াশা পরিবেশের মাঝে হেডলাইটের আলোই আপনাকে সবকিছু দেখতে সাহায্য করবে।

সামনের গাড়ি থেকে সেকেন্ড দূরত্ব রাখুন    

সবসময় সামনের গাড়ি থেকে কমপক্ষে ৩/৪ সেকেন্ড দূরত্ব রাখা উচিত। আর বৃষ্টি নামার সময় তা অন্তত ৫ সেকেন্ড করা দরকার। এতে গাড়িতে গাড়িতে ধাক্কা হতে রক্ষা পাওয়া যাবে। আর তাইতো বৃষ্টির মাঝে ড্রাইভ করার সময়ও অন্য গাড়ি থেকে যথেষ্ট দূরত্ব বজায় রেখে চলুন। এবং এর ফলে দুর্ঘটনা ঘটার ঝুঁকিও থাকবে না।

এক হাত দিয়ে গাড়ি চালাবেন না   

আবহাওয়া খারাপ থাকুক বা নাই থাকুক কখনোই এক হাতে গাড়ি চালাবেন না। অনেকেই এক হাতে মোবাইল ধরে কথা বলেন আর অন্য হাত দিয়ে গাড়ি চালান। কিন্তু এই বদভ্যাস আপনার এবং অন্যদের নিরাপত্তাকে ঝুঁকির মুখে ফেলবে। এবং বৃষ্টির সময় তা দুর্ঘটনা ঘটার সম্ভাবনাকে আরও কয়েক গুণ বাড়িয়ে দিবে। সুতরাং নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে দুই হাত দিয়ে ৯ O”Clcok এবং ৩ O”Clock করে গাড়ি চালানো উচিত। কারণ এর ফলে সর্বোচ্চ কন্ট্রোল পাবেন।

আস্তে করে টার্ন নিবেন    

বর্ষাকালে মাঝে মধ্যে প্রবল বৃষ্টিপাত হয়। তখন দেখা যায় রাস্তা ভিজে অনেকটাই পিচ্ছিল হয়ে যায়। আর ভেজা পিচ্ছিল রাস্তায় গাড়ির কন্ট্রোল কম থাকে। সেজন্য ভেজা রাস্তায় খুব দ্রুত টার্ন নিবেন না। কারণ তাতে যেকোন দুর্ঘটনা ঘটার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। আর তাইতো সতর্কতার সাথে আস্তে করে টার্ন নিন।

গাড়ি থামানোর সময় সতর্কতা অবলম্বন করুন      

অনেকসময় অতিরিক্ত বৃষ্টিতে রাস্তা ডুবে যায়। ভেজা পিচ্ছিল হয়ে যায় কিংবা ধোঁয়াশা হয়ে সামনের কিছুই দেখা যায় না। আর সেসময় যদি নিরাপদে গাড়ি চালানো সম্ভব না হয়। তবে সাবধানে হর্ন দিয়ে গাড়ি রাস্তার পাশে সাইড করে ফেলুন। এক্ষেত্রে গাড়ি রাস্তার পাশে থামানোর সময় সিগন্যাল অন করুন। গাড়ির সামনে পিছনে সতর্ক দৃষ্টি রেখে, ব্লাইন্ড স্পটগুলো চেক  করুন। এবং যত দ্রুত সম্ভব গাড়ি রাস্তার পাশে নিয়ে আসুন। এরপর গাড়ির ফোর-ওয়ে লাইটগুলো অন করে দিন।

ঝড়বৃষ্টির দিনে নিরাপদ থাকতে অধিক মনোযোগের সাথে গাড়ি চালান। আপনার একটুখানি সতর্কতা বাঁচিয়ে দেবে অনেক মূল্যবান জীবন। এই আষাঢ়ের ঘোর বর্ষণের মাঝেও নিরাপদ হোক আপনার পথচলা।

    গাড়ির সুরক্ষায় প্রহরী সম্পর্কে জানতে

    Share your vote!


    এই লেখা নিয়ে আপনার অনুভূতি কী?
    • Fascinated
    • Happy
    • Sad
    • Angry
    • Bored
    • Afraid

    মন্তব্যসমূহ

    Scroll to Top