সস্তায় গাড়ি কেনা : এক্ষেত্রে যে ১০ টি ভুল সবাই করে

কোন কিছু কেনার সময় আমরা না বুঝেই অনেক ভুল করে ফেলি, সেটা নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসই হোক কিংবা বিলাস বহুল। ভুল করে ফেললে খুব সহজেই তা পরিবর্তন ও করা যায় না, সময়ের সাথে সাথে তা বিড়ম্বনা বাড়াতেই থাকে। তাই বিশেষ করে বিলাসবহুল পণ্যে কিনার ক্ষেত্রে প্রয়োজন বাড়তি সতর্কতা। আর তা যদি হয় সস্তায় গাড়ি কেনা , তাহলে তো ভুল করার সম্ভাবনা রয়েছে আরো অধিক!

গাড়ির ক্ষেত্রেই যদি ধরি, তাহলে দেখা যাবে সস্তায় কিনতে গিয়ে আমরা অনেক গুরুত্বপূর্ন দিকই খেয়াল করি না! প্রথম কিনতে যেয়ে অভিজ্ঞতার অভাব,কিংবা অসতর্কতার কারনে কিছু ভুল হয়ে যায়! সে রকম ১০টি ভুল নিয়েই আয়োজন আমাদের! চলুন দেখি নেই কি ধরণের ভুল করা হয়ে থাকে, এতে আপনিও সতর্ক হতে পারবেন অনেকটা।

১০) গাড়ির ট্রাভেল হিস্টোরী রিপোর্ট :

সস্তায় গাড়ি কিনার ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় ভুল হয়ে থাকে গাড়ির ট্রাভেল হিস্টোরী সম্পর্কে না জানা। গাড়ির সামগ্রিক একটি প্রেক্ষাপট দাড় করায় এই হিস্টোরী। অনেক সময় গাড়ি বিক্রেতারা ইচ্ছাকৃত ভাবে তা আড়াল করতে চায়, যার ফলে এর দায় পোহাতে হয় ক্রেতাদের। তাই গাড়ি কিনার ক্ষেত্রে অন্যতম একটি ধাপ হলো হিস্টোরী দেখে নেয়া।

৯) বাহিরের চাকচিক্য দেখে গাড়ি কেনা :

বাহিরের চাকচিক্য আমরা অনেক সময় অন্ধ হয়ে যাই।বাহিরের অংশ দেখে আর কোনো দিকে খেয়াল করি না। গাড়ি কিনার ক্ষেত্রেও এটি একটি বড় ভুল। শুধু মাত্র গাড়ির বাহিরের অংশ দেখে গাড়ি কিনা অনেক গিয়ারহীন গাড়ি কেনার ক্ষেত্রে দায়ী। সাধারনত সস্তায় গাড়ি কেনার ক্ষেত্রে গাড়ির বাহিরের চেহারা দেখার অভ্যাস ত্যাগ করা উচিত।

৮) শুধুমাত্র মাসিক খরচ দেখা :

সব কিছুতেই আমাদের একটু দীর্ঘস্থায়ী চিন্তা করলে ভালো হয়। সস্তায় গাড়ি কেনার ক্ষেত্রে মাসিক খরচের দিকটি চিন্তা করা ভালো,তবে এর সাথে বার্ষিক খরচ বিষয়টির দিকটিও খেয়াল রাখতে হবে। অনেক গাড়ি বিক্রেতা তাদের গাড়ি বিক্রির সুযোগ বৃদ্ধির জন্য বার্ষিক পেমেন্ট এর হিসাব আড়াল করতে পারে। নিজের আয়ের সাথে সামঞ্জস্য রেখে বার্ষিক সব খুটিঁনাটি ব্যায়ের দিকটিও খেয়াল রেখে তারপর গাড়ি কিনলে ভালো হবে। অথচ আমরা এই ভুলটি প্রায়ই করে থাকি।

৭) মূল্য জিজ্ঞাসা করা :

সস্তায় গাড়ি কিনতে গিয়ে আমরা অনেক সময় কিছুটা ভীত থাকি। মনে হতে পারে কিনছিই তো সস্তায় তার আবার দরকষাকষির মূল্য! তাই বিক্রেতা যা চায়, আমরা মনে করি তা গাড়ির ক্ষেত্রে উপযুক্ত। এই ভুলটি হয় আমাদের। তবে মনে রাখতে হবে বিক্রেতারা সব সময় গাড়ির উপর কিছুটা কিছুটা বাড়তি চার্জ আদায় করে। এ ক্ষেত্রে দরকষাকষি করতে ভয় পাওয়া যাবে না। কেননা আপনি গাড়ি কিনছেন, তা আপনার অধিকার।

৬) জনপ্রিয় দেখেই বিশ্বাস করা :

নামের উপরই আমরা অনেক কিছু বিশ্বাস করে ফেলি। আসলে একই নাম সিরিজের সব কিছুই যে ভালো হবে তা কিন্তু ঠিক না। গাড়ি কিনার ক্ষেত্রে এই ভুলটিও আমরা করে থাকি। গাড়ির ব্যান্ড আর নাম দেখে এর উপর সম্পূন্ন ভাবে নির্ভর করা খুব সহজ কিন্তু তা ফলপ্রসূ হয়ে উঠে না অনেক সময়। সব কিছু সম্পর্কে রিসার্চই মূল ভিত্তি গাড়ি কেনার ক্ষেত্রে, কোনো একক বিশ্বাস না রেখে।

৫) গাড়ি ড্রাইভ না করে দেখা :

গাড়ি কেনার সময় আমাদের উত্তেজনা কাজ করে। গাড়ি কেনা বলে কথা! এই উত্তেজনা বশত খুব গুরুত্বপূর্ন কিছু ভুল করে ফেলা হয়। বিশেষ করে সস্তায় গাড়ি কেনার ক্ষেত্রে আরো বেশি। গাড়ি কেনার ক্ষেত্রে সব সময় তা ড্রাইভ করে দেখা উচিত! এতে অনেক সঙ্গতি-অসঙ্গতি উঠে আসবে। একেক গাড়ি ড্রাইভে একেক অভিজ্ঞতা অনুভূত হয়। আপনি যে রকমটা চাচ্ছেন, সে রকম না ও হতে পারে পরবর্তীতে গাড়ির ড্রাইভ। তাই ড্রাইভ করে দেখে নেয়া উচিত তা আসলে কেমন,কোনো ধরনের ভিন্ন কিছু অনুভূত হয় কি না! এটি একটি গুরুত্বপূর্ন বিষয়, যা হরহামেশাই ভুল হয়ে থাকে।

৪) ইন্স্যুরেন্স সম্পর্কে অবগত না থাকা :

গাড়ি কেনার ক্ষেত্রে ইন্স্যুরেন্স সম্পর্কে ভুলে যাওয়া ও খুব অস্বাভাবিক নয়। ইন্স্যুরেন্স খুব গুরুত্বপূর্ন একটি দিক। গাড়ি কিনার আগে ইন্স্যুরেন্স সম্পর্কে জেনে নিন। গাড়ির ক্রয়ের উপর ইন্স্যুরেন্স খরচ পরিবর্তিত হয় আপনার পরবর্তী গাড়িটির ইন্স্যুরেন্স স্পষ্ট ভাবে জানা থাকা প্রয়োজন।

৩) নির্ভরযোগ্য নয়, মজার জন্য কেনা :

সস্তায় গাড়ি কেনার ক্ষেত্রে নির্ভরযোগ্যতা অন্যতম একটি বিষয়। নির্ভরযোগ্য না থাকা সত্ত্বেও শুধুমাত্র ফান করার প্রয়োজনে সস্তায় গাড়ি কেনা ঠিক নয়। একটি গাড়ি সস্তায় কেনায় ঝুকি কম হতে পারে, তবে নির্ভরযোগ্যতা খুব প্রয়োজনীয়। নির্ভরযোগ্য গাড়ি পেতে হলে কিছুটা হলেও রিসার্চ করা প্রয়োজন।

২) গাড়ি মেকানিক দ্বারা না দেখানো:

গাড়ি ক্রয়ের ক্ষেত্রে ক্রেতাই যে সবকিছু জানবে এমনটা নয়। তবে এক্ষেত্রে একটি ভুল হয়ে থাকে গাড়িকে মেকানিক দ্বারা না দেখানো। বিশেষ করে সস্তায় গাড়ি কিনার ক্ষেত্রে এই ভুলটি অনেক বেশি। সস্তায় গাড়ি কেনার ক্ষেত্রে একজন মেকানিক দ্বারা পরীক্ষা করা বাধ্যতামূলক, কেননা আপনি যে সম্পর্কে সচেতন না কিংবা জানেন না, সে ক্ষেত্রে মেকানিক ভালো ধারনা দিতে পারবে। একজন ভালো মেকানিককে আপনি বিশ্বাস করতে পারেন, যা আপনাকে অনেক বিড়ম্বনা থেকে রক্ষা করতে পারে।

১) অসৎ বিক্রেতার কাছে যাওয়া :

গাড়ি কিনার ক্ষেত্রে সবচেয়ে যে বড় ভুল আমাদের তা হচ্ছে অসাধু বিক্রেতার শরণাপন্ন হওয়া। গাড়ি বিক্রির ক্ষেত্রে বিক্রেতারা অনেক সময় ছলছাতুরির আশ্রয় নিয়ে থাকতে পারেন। ভুল করে অনেক সময় এই বিক্রেতাদের কাছে পড়লে ক্রেতার জন্যই সমস্যা। এটা খুবই প্রয়োজনীয় যে সব কিছু সম্পর্কে জিজ্ঞেস করা, যদি কথা অনুযায়ী কোনো অসঙ্গতি থাকে তবে তা পরিত্যাগ করা। এ ছাড়াও গাড়ি সম্পর্কে ভালো লাগে জানা, ইন্টারনেটে গাড়ির রিভিও দেখা। সর্বোপরি সস্তায় গাড়ি কেনার ক্ষেত্রে বিক্রেতার আচরন সম্পর্কে অবগত হওয়া জরুরুী।

গাড়ির সুরক্ষায় প্রহরী সম্পর্কে জানতে

এই লেখা নিয়ে আপনার অনুভূতি কী?
  • Fascinated
  • Happy
  • Sad
  • Angry
  • Bored
  • Afraid

মন্তব্যসমূহ


footer-svg