১০ টি ব্রিটিশ গাড়ি : যেগুলোর নামই হয়ত আপনার অজানা!

অনেক কিছুর নামই হয়তো আমরা শুনি না, তবে এই না শোনাকে আমরা হয়তো শুনতে চাই। পৃথিবীতে কোনো কিছু ছিলো বা আছে এরকম কিছু যদি না জানি তাহলে এ ভাবে অনেক কিছুই থেকে যাবে আমাদের জানার বাহিরে। আজকে আপনাদের জানাবো কিছু ব্রিটিশ গাড়ি  নিয়ে কিছু কথা যার নামই হয়তো খুব সম্ভবত আপনি শুনেন নি। ব্রিটিশ গাড়ির ব্যান্ড গুলো অটোমোবাইলের ইতিহাসে বেশ তাৎপর্যপূর্ণ অবদান রেখেছে এবং ইউরোপীয় গাড়ির বাজারকে আরো গতিশীল করে তুলেছে। একসময় শক্তিশালী কোম্পানীগুলো জাতীয়তাবোধে উদ্ধুদ্ধ হয়ে বিলাসবহুল পারফরম্যান্স এর দিক দিয়ে মান সম্পূর্ন ভিন্নধর্মী মডেলের ব্রিটিশ গাড়ি তৈরি করে। Uk তে সময়ের সাথে গড়ে উঠেছে Aston Martin, Mini Jaguar,land Rover, Bentley এবং Rolls Royce এর মতো গাড়ি উৎপাদন কারী প্রতিষ্ঠান। ১৯৬০ এর দশকের শুরুতে মোট কর্মশক্তির ৫ ভাগ কর্মরত ছিলো গাড়ির ইন্ড্রাস্ট্রিতে। দেশে বিক্রি হওয়া সমস্ত গাড়ির দশ শতাংশই আমদানি করা হয়েছিলো।

১৯৭০ সালের দিকে ব্রিটিশ গাড়ি ইন্ড্রাস্ট্রিতে ভাটা পড়ে কিছুটা। শ্রমিক বিরোধ এবং নানা বিধ কারণে পরিবর্তিত বাজারের সাথে তাল মিলিয়ে উঠতে পারছিলো না উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান গুলো। দিনে দিনে গাড়ি কোম্পানীগুলো অলাভজনক প্রতিষ্ঠানে রুপ পায়।প্রধানমন্ত্রী মার্গারেট থ্রেচার বিদেশী বিনিয়োগ বাড়ানোর দিকে মনোযোগ দেন এবং ১৯৮০ এর দশকে আমদানিকারক গাড়ি গুলো Uk বাজারে ৬০ শতাংশের প্রতিনিধিত্ব করে। কয়েকবছর যাবৎ অনেক ছোট কোম্পানী ব্রিটিশ গাড়ির বাজারে অবদান রাখছে। নিচে ১০ টি ব্রিটিশ গাড়ি মডেলের তালিকা দেয়া হলো, যার নাম হয়তো আপনি কখনো শুনেন নি।

১০) David Brown Automotive Speedback GT

এটির নির্মাতা ডেভিড ব্রাউন, ২০১৩ সালে এর আবির্ভাব ঘটান। একই নামের আরেকজন নির্মাতা ডেভিড ব্রাউন নামের যিনি Aston Martin তৈরি করেছিলেন। David Browns এর উল্লেখযোগ্য ফিচার গুলো হচ্ছে The Speedback GT, XKR Chassis, ইঞ্জিন এবং অন্যান্য গুরুত্বপূর্ন ম্যাকানিক্যাল পার্টস। এর অন্যান্য উপাদান গুলোও কিছুটা ভিন্ন। অ্যালুমিনিয়ামের বডি এটিকে কাঠামোগত ভাবে শক্ত করে তোলে এবং ওজন কমায়। এটির ইন্টেরিয়র চামড়া,কাঠ,এবং ধাতুর মিশ্রনে তৈরি। স্পিডব্যাক GT এর খরচ পরে প্রায় ৭৩০,০০০ ডলার।

৯) Morgan 3 Wheeler

যদি ও Morgan Motor কোম্পানী ১৯১০ সাল থেকে স্পোর্টসকার তৈরি করে আসছে এই ব্যান্ডটি সেই সাথে উদ্যমশীলতার জন্যে ও পরিচিত। এই কোম্পানী মাত্র ৮৫০ টি গাড়ি উৎপাদন করে বছরে, যার বেশির ভাগই তিনচাকার। Morgans এর গাড়ি গুলো কিছুটা ব্যতিক্রম এই জন্য যে, উৎপাদনের বছর থেকে এটি তৈরির কৌশল পরিবর্তন করে উন্নত করার চেষ্টা চলছে। অনেক Morgans এর সমসাময়িক স্থায়িত্ব অ্যালুমিনিয়ামের উপর নির্ভর করে।

৮) Arash AF8 Cassini

Arash Farboud স্পোর্টসকার তৈরি করে, এবং শুরুর দিকে Farboud Limited নামে ১৯৯৯ সাল পর্যন্ত চলে, এর পরে এটির নাম পরিবর্তিত হয় Arash Motor Company নামে। এই কোম্পানির সবচেয়ে প্রসার ঘটেছিলো যখন সুপারকার AF10 এর আবির্ভাব হয়েছিলো। Arash দাবি করে যে মাত্র ২.৪ সেকেন্ড এ এটি ২০০ mph গতিতে শুন্য থেকে 60 mph পৌঁছাতে পারে। Arash তার AF8 Cassini, 205,000 ডলারে বাজারজাত করেছিল।

৭) Ginetta F400

Ginetta F400 ছিলো Farboud GTS এর মালিকানাধীন, ২০১০ এর মার্চে Ginetta এর মালিকানা কিনে নেয়, এবং এর নামকরণ করে F40। এই স্পোর্টস কারটির মধ্যে এমন কিছু অজানা পারফরম্যান্স রয়েছে যা গাড়ি প্রেমীদের আকৃষ্ট করার ক্ষমতা রাখে। F400 এর কার্বন ফাইবার বডি ওয়ার্ক এবং অসংখ্য রেইস বডি ফিচার এটিকে গাঠনিক দিক দিয়ে করেছে অনন্য।

৬) Noble M600

২০১০ পর্যন্ত M600 হচ্ছে একমাত্র গাড়ি যা Noble Automotive তৈরি করেছে এবং hardtop ও roadster উভয় ভার্সনই পাওয়া যায় এটির।

এর Chassis এর উৎস হচ্ছে সাউথ আফ্রিকা এবং ইঞ্জিন আসে স্ক্যান্ডেনেভিয়া থেকে। এটি 225 mph গতিতে 2.7 সেকেন্ডে 0-60 mph পর্যন্ত যেতে পারে। Noble কার তার অবস্থান অর্জন করে নিয়েছেন এবং এটি এলিট শ্রেনীতে ঠাঁই করে নেয়। আমেরিকার রেসার Tanner Foust বলেন যে M600 নিজেকে প্রমান করে এলিট শ্রেণীতে নিয়ে গেছে।

৫) Axon

অনেকেই হয়তো Axon এর নাম শুনে থাকবেন না, কেননা ইউরোপে এই গাড়িটির উৎপাদন নতুন এবং এটি পর্যাপ্ত তেল কম খরচ করা একটি বাহন! The Axon Hatchback hybrid একটি Plug এর মাধ্যমে ১০০ মাইল যেতে পারে!

৪) Morris Marina

Morris Minor এর মতো সুপরিচিত ব্রিটিশ গাড়ি কমই আছে। ব্রিটিশ অটোমোবাইল এর ইতিহাসে এটি একটি ক্লাসিক ডিজাইন হিসেবে পরিচিত এবং এটিই প্রথম গাড়ি যার বিক্রি মিলিয়ন এর উপরের ঘরে পৌঁছায়। Morris Marina পরিচিতির দিক থেকে Minor এর ধারে কাছেও নেই। Marina রাস্তায় খুবই কম দেখা যায় এখন। ১৯৭১ থেকে ১৯৮০ পর্যন্ত এর উৎপাদন ছিলো ৮০৯,৬১২ । ২০০৫ সাল পর্যন্ত ছিলো মাত্র ৫৫০ টা এবং শেষ পর্যন্ত ২৯০ এর নিচে নেমে যায় এর সংখ্যা।

৩) Jowett Javelin

Jowett Javelin তার সময়কার এর জন্য এডভান্সড একটি গাড়ি। Javelin এর নির্মান তখন ও স্টিলের ছিলো, যখন ব্রিটিশ গাড়ি গুলো সাধারণত স্টিলের আওতাভুক্ত ছিলো না। Jowett তার গাড়ি তৈরিতে কিছু অসাধারণ পদ্ধতি ব্যবহার করে থাকে।

২) Riley Kestrel Sprite

Riley হচ্ছে একটি ব্রিটিশ কোম্পানী যা, মোটর কারস এবং বাইসাইকেল উৎপাদন করে আসছে ১৮৯০ সাল থেকে। ১৯৩০ সাল পর্যন্ত এই কোম্পানী Sports Saloons এবং Coups সহ অনেক মডেল এর উৎপাদন করে আসছে। ১৯৩৬ সালে Riley Sprite বিবেচিত হয়েছিলো বিশ্বের সবচেয়ে সুন্দর ছোট এবং ক্ষমতাসম্পূর্ন স্পোর্টস কার হিসেবে। ১৯৬৮ সালে এটি British Leyland Motor কর্পোরেশনের সাথে যুক্ত হয় এবং Riley এর উৎপাদন বন্ধ হয়ে যায়।

১) Caparo vehicle Technologies T1

Caparo Vehical Technologies ছিলো স্বল্প স্থায়িত্বের একটি কোম্পানী যার স্থায়িত্ব ছিলো ২০০৬ থেকে ২০০৯ পর্যন্ত। অটোমেটিভ ডিজাইন এডভান্সড টেকনোলজি এবং ইঞ্জিনিয়ারিং ম্যাটারিয়ালস এর জন্য বেশ প্রসিদ্ধ ছিলো এটি। T1 রাস্তার বৈধ একটি কার, যা স্মার্ট গাড়ির চেয়ে ২০% কম ওজনের। এটির সুসজ্জিত Windscreen, 575 horse powers পাওয়ার এর দিক থেকে Bugatti Veyron এর প্রায় সমান।

গাড়ির সুরক্ষায় প্রহরী সম্পর্কে জানতে

এই লেখা নিয়ে আপনার অনুভূতি কী?
  • Fascinated
  • Happy
  • Sad
  • Angry
  • Bored
  • Afraid

মন্তব্যসমূহ


footer-svg