প্রহরী – Vehicle Tracking System (VTS) of Bangladesh

পড়তে লাগবে: 3 মিনিট

ট্রাফিক আইন অনুসারে গাড়ি চালানো সংক্রান্ত অপরাধ এবং শাস্তি

অনেকেই খরচ এবং সময় বাঁচাতে নিজ সামর্থ্য অনুযায়ী বিভিন্ন ধরণের নিজস্ব মোটরযান ব্যবহার করে থাকেন। কিন্তু মোটরযান চালানোর জন্য সকলেরই কিছু আইন কানুন মেনে চলতে হয়। অনেক সময় মোটরযান আইন না জানার কারণে চলতি পথে অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতির শিকার হতে হয়।  ফলে যারা মোটরযান চালান, তাদের সকলের উচিৎ দেশের ট্রাফিক আইন সংশ্লিষ্ট বিধিবিধান ও শাস্তি সম্পর্কে একটি স্বচ্ছ ধারণা রাখা।  এতে করে চালক হিসেবে মানুষের সচেতনতা বাড়বে এবং পাশাপাশি রাস্তায় নিয়ম শৃঙ্খলা বজায় থাকবে।  এবার দেখে নেয়া যাক ট্রাফিক আইন অনুযায়ী কোন অপরাধের শাস্তি কেমন।

লাইসেন্সবিহীন গাড়ি চালনাঃ

লাইসেন্স ছাড়া গাড়ি চালালে, ১৩৮ ধারা অনুসারে চালকের সর্বোচ্চ ৪ মাসের কারাদণ্ড বা সর্বচ্চো ৫০০ টাকা জরিমানা বা উভয়দণ্ড হতে পারে।

গাড়িতে নিষিদ্ধ হর্ন বা শব্দ সৃষ্টিকারী যন্ত্র ব্যবহারঃ

ধারা ১৩৯ অনুসারে, গাড়িতে হাইড্রোলিক হর্ন বা বিকট শব্দ সৃষ্টিকারী নিষিদ্ধ ডিভাইস ব্যবহারের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ১০০ টাকা অর্থদণ্ড হবে।

ট্রাফিক আইনের আদেশ অমান্য, বাধা দান এবং তথ্য প্রদান না করাঃ

কোন চালক বা যাত্রী ট্রাফিক আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর আদেশ অমান্য করলে, বা অন্য কাউকে আদেশ মেনে চলতে বাধা দিলে এবং তথ্য দানে বাধা দিলে ধারা ১৪০ অনুসারে, অপরাধীকে সর্বোচ্চ ১ মাসের কারাদণ্ড অথবা সর্বোচ্চ ৫০০ টাকা জরিমানা করা হবে কিংবা উভয়বিধ দণ্ডে দণ্ডিত হবে।

নির্ধারিত গতির চাইতে বেশি বেগে গাড়ি চালনাঃ

নির্ধারিত গতির চাইতে বেশি বেগে গাড়ি চালালে, ধারা ১৪২ অনুযায়ী, প্রথম বার এই অপরাধের জন্য সর্বোচ্চ ১ মাসের কারাদণ্ড বা ৩০০ টাকা পর্যন্ত অর্থদণ্ড কিংবা উভয়বিধ দণ্ডে দণ্ডিত হবে।  একই চালক দ্বিতীয়বার এই অপরাধ করলে, সর্বোচ্চ ৩ মাসের কারাদণ্ড বা ৫০০ টাকা পর্যন্ত অর্থদণ্ড কিংবা উভয়বিধ দণ্ডে দণ্ডিত হবে।  এবং লাইসেন্স অনূর্ধ্ব এক মাসের জন্য বাতিল ঘোষণা করা হবে।

অসাবধানে বা বিপজ্জনকভাবে গাড়ি চালানোঃ

ধারা ১৪৩ অনুসারে, প্রথমবার এই অপরাধের জন্য সর্বোচ্চ ছয় মাসের কারাদণ্ড অথবা ৫০০ টাকা জরিমানা, পরবর্তী সময়ে এই অপরাধের জন্য ছয় মাসের কারাদণ্ড অথবা ১০০০ টাকা জরিমানা কিংবা কিংবা উভয়বিধ দণ্ডে দণ্ডিত হবে।  এবং তার লাইসেন্স অনূর্ধ্ব এক মাসের জন্য বাতিল বলে ঘোষণা করা হবে।

মদ্যপান বা মাদকদ্রব্য সেবনের পর মাতাল অবস্থায় গাড়ি চালালেঃ

প্রথম বার এই অপরাধের জন্য অপরাধী অন্যূন ৩ মাসের কারাদণ্ড অথবা ১০০০ টাকা অর্থদণ্ড কিংবা উভয়বিধ দণ্ডে দণ্ডিত হবে।  এরপর প্রতিবার অনুরূপ অপরাধের জন্য সর্বোচ্চ ২ বছরের কারাদণ্ড অথবা ১০০০ টাকা পর্যন্ত অর্থদণ্ড কিংবা উভয়বিধ দণ্ডে দণ্ডিত হবে।  এবং তার লাইসেন্স নির্দিষ্ট মেয়াদের জন্য বাতিল করা হবে।  এই শাস্তি ধারা ১৪৪ এর অন্তর্গত।

শারীরিক বা দৈহিক ভাবে অনুপযুক্ত গাড়ি চালনাঃ

ধারা ১৪৬ অনুসারে, প্রথমবার এই অপরাধের জন্য  সর্বোচ্চ ৫০০ টাকা অর্থদণ্ড এবং ড্রাইভিং লাইসেন্স নির্দিষ্ট সময়ের জন্য বাতিল করা হবে। পুনরায় একই অপরাধের জন্য ৩ মাসের কারাদণ্ড অথবা ৫০০ টাকা পর্যন্ত অর্থদণ্ড কিংবা উভয়বিধ দণ্ডে দণ্ডিত হবে।

দুর্ঘটনা সংক্রান্ত অপরাধঃ

১৪৬ ধারা অনুসারে, সর্বোচ্চ ৩ মাস কারাদণ্ড অথবা সর্বোচ্চ ৫০০ টাকা অর্থদণ্ড পর্যন্ত কিংবা উভয়বিধ দণ্ডে দণ্ডিত হবে, কিংবা এই ধারায় বর্ণিত উপরোক্ত অপরাধের জন্য পূর্বে দোষী সাব্যস্ত হলে পরবর্তী সময়ে অনুরূপ অপরাধের জন্য প্রতিবার ৬ মাসের কারাদণ্ড অথবা ১০০০ টাকা পর্যন্ত অর্থদণ্ড কিংবা উভয়বিধ দণ্ডে দণ্ডিত হবে।

মটরগাড়ির রেসিং বা দৌড়বাজি ও গতি পরীক্ষাঃ

১৪৮ ধারা অনুসারে ১ মাসের কারাদণ্ড অথবা ৫০০ টাকা অর্থদণ্ড কিংবা উভয়বিধ দণ্ডে দণ্ডিত হবে।  এবং ড্রাইভিং লাইসেন্স এক মাসের জন্য বাতিল হবে।

নিরাপদবিহীন অবস্থায় গাড়ি চালানোঃ

১ মাস পর্যন্ত কারাদণ্ড অথবা ২৫০ টাকা পর্যন্ত অর্থদণ্ড কিংবা উভয়বিধ দণ্ডে দণ্ডিত হবে।  অনুরূপ ত্রুটির কারণে দুর্ঘটনা ঘটে কারো দৈহিক জখম বা সম্পত্তির ক্ষতি হলে তিনি সর্বোচ্চ ৩মাসের কারাদণ্ড অথবা ১০০০ টাকা পর্যন্ত অর্থদণ্ড কিংবা উভয়বিধ দণ্ডে দণ্ডিত হবে।  এই দণ্ড ১৪৯ ধারার অন্তর্গত।

কালো ধোঁয়া বের হওয়া মটোরযান চালনাঃ

ধারা ১৫০ অনুসারে ক্ষতিকারক কালো ধোঁয়া নিঃসরণকারী গাড়ি চালালে সর্বোচ্চ ২০০ টাকা অর্থদণ্ড হবে।

মোটরযান বিধিমালার সাথে অসঙ্গতি রেখে গাড়ি বিক্রয় ও পরিবর্তন সাধনঃ

ধারা ১৫১ অনুযায়ী এই অপরাধের শাস্তি সর্বোচ্চ ২ বছর মেয়াদী কারাদণ্ড, কিংবা ৫০০০ টাকা জরিমানা, অথবা উভয়বিধ দণ্ড দেয়া যেতে পারেঃ তবে শর্ত থাকে যে, কন ব্যক্তিকে এই ধারা অনুযায়ী দোষী সাব্যস্ত করা যাবে না যদি তিবি প্রমান করতে পারেন যে, মোটরযানটি আইনানুগভাবে ব্যবহারের উপযোগী না করা পর্যন্ত তা প্রকাশ্য স্থানে ব্যবহৃত হবে না।

রেজিস্ট্রেশন, ফিটনেস সার্টিফিকেট বা পারমিট ছাড়া মোটরগাড়ি ব্যবহারঃ

ধারা ১৫২ অনুসারে, প্রথমবার এ অপরাধের জন্য ৩ মাসের কারাদণ্ড অথবা ২০০০ টাকা পর্যন্ত জরিমানা, কিংবা কিংবা উভয়বিধ দণ্ডে দণ্ডিত হবে।  দ্বিতীয়বার একই অপরাধের জন্য ৬ মাসের কারাদণ্ড অথবা ৫০০০ টাকা পর্যন্ত জরিমানা বা উভয়বিধ দণ্ডে দণ্ডিত হবে।

অনুমোদিত ওজনের চাইতে বেশি ভারী গাড়ি চালনাঃ

১৫৪ ধারা অনুযায়ী, প্রথমবার সংঘটনের জন্য ১০০০ টাকা টাকা অর্থদণ্ড এবং পরের বার একই অপরাধের জন্য ৬ মাস পর্যন্ত কারাদণ্ড অথবা ২০০০ টাকা পর্যন্ত অর্থদণ্ড কিংবা উভয়বিধ দণ্ডে দণ্ডিত হবে।

 অবিমাকৃত মোটরযান চালনাঃ

১৫৫ ধারা অনুসারে ২০০০ টাকা পর্যন্ত অর্থদণ্ডে দণ্ডিত হবে।

অনুমতিবিহীন গাড়ি চালনাঃ

১৫৬ ধারা অনুযায়ী, ৩ মাস পর্যন্ত কারাদণ্ড, অথবা ২০০০ টাকা পর্যন্ত অর্থদণ্ড কিংবা উভয়বিধ দণ্ডে দণ্ডিত হবে। এবং পরবর্তীতে একই অপরাধের জন্য ৬ মাসের কারাদণ্ড অথবা ২০০ টাকা পর্যন্ত অর্থদণ্ড কিংবা উভয়বিধ দণ্ডে দণ্ডিত হবে।

মোটরযান আইন মেনে চলুন এবং আপনার নিজের এবং অপরের নিরাপত্তা নিশ্চিত করুণ।

সূত্রঃ http://www.brta.gov.bd

    গাড়ির সুরক্ষায় প্রহরী সম্পর্কে জানতে

    Share your vote!


    এই লেখা নিয়ে আপনার অনুভূতি কী?
    • Fascinated
    • Happy
    • Sad
    • Angry
    • Bored
    • Afraid

    মন্তব্যসমূহ

    Scroll to Top