প্রহরী – Vehicle Tracking System (VTS) of Bangladesh

পড়তে লাগবে: 4 মিনিট

গাড়ির চাকা বদলানোর সঠিক নিয়মাবলী

সাপ্তাহিক ছুটিতে প্রিয়জনকে নিয়ে গেলেন লং ড্রাইভে। কিন্তু অগত্যা গাড়ির টায়ার পাংচার হয়ে গেল।এমন সময় চারপাশে তাকিয়ে দেখলেন আশেপাশে কোন গাড়ি সার্ভিসিং সেন্টারও নেই। এদিকে দেরি হয়ে যাচ্ছে, সন্ধ্যা নেমে গেলে বাড়তে পারে বিপদের সম্ভাবনা। তাই যত দ্রুত সম্ভব গাড়ির চাকা পরিবর্তন করতেই হবে। এমন অবস্থায় আটকে না থেকে, নিজেই শিখে নিন কীভাবে গাড়ির চাকা পরিবর্তন করতে হয়। তাহলে বিপদ এবং ঝামেলা থেকে মুক্তি পাবেন দ্রুতই।

প্রাথমিক ব্যাবস্থা

গাড়ির টায়ার পাংচার হলে প্রথমে গাড়িটিকে রাস্তা থেকে সরিয়ে নিরাপদ দূরত্বে নিয়ে যান, যাতে রাস্তায় গাড়ির চলাচলে সমস্যা না হয় এবং অন্য গাড়ি আপনার গাড়িকে ধাক্কা দিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত করতে না পারে। এরপর চেক করে দেখুন গাড়ির পার্কিং ব্রেক সম্পূর্ণরূপে প্রয়োগ করা আছে কিনা। গাড়ির পার্কিং ব্রেক গাড়িকে স্থির রাখতে সাহায্য করে। এরপর আশেপাশে আধ টুকরা ইট বা পাথর খুঁজে বের করুণ এবং গাড়ির দুটি চাকার সামনে এবং পেছনে ইট দিয়ে রাখুন। তাতে গাড়ির স্থিতিশীলতা আরো শক্ত হবে। এবার গাড়ির স্পেয়ার চাকা বের করুন। চাকা পরিবর্তন করার আগে দেখে নিন এই স্পেয়ার বা অতিরিক্ত চাকাটির ত্রুটি আছে কিনা । চাকাকে দুই হাত দিয়ে তুলতে চেষ্টা করবেন না, বরং এক পাশ তুলে গড়িয়ে গড়িয়ে নষ্ট চাকার কাছে নিয়ে যান। গাড়ি চাকা বদলাবার জন্য প্রয়োজনীয় যন্ত্রাংশ বের করে চাকার কাছে নিয়ে যান।

সঠিক জায়গায় জ্যাক স্থাপন করে গাড়ি উঁচু করুন

গাড়ির টায়ার বা চাকা বদলানোর জন্য একটি সমতল জায়গা খুঁজে বের বের করুন। সমতল গায়গায় গাড়ি রেখে গাড়িকে জ্যাক আপ করতে হবে। নতুবা সঠিক জায়গায় সঠিক ভাবে গাড়ির নতুন চাকা স্থাপন করা যাবে না। আর গাড়ির চাকা যদি সঠিক জায়গায় সঠিক ভাবে স্থাপিত না হয় তাহলে কিন্তু দুর্ঘটনার ঝুঁকি থেকেই যাবে। নিচে দেখনো ছবির মতো সমতলে গাড়ি রেখে গাড়ির চাকা পরিবর্তন করতে হবে।

টায়ার বা চাকা বদলানোর জন্য গাড়ির চাকাকে সমতল থেকে একটু উপরে টেনে তুলতে হবে। এর জন্য গাড়ির চাকার পাশ দিয়ে লিভার জ্যাক ব্যবহার করতে হয়। আপনার গাড়ির ইউজার ম্যানুয়াল দেখে নিশ্চিত হয়ে নিন আপনার গাড়ির জ্যাক পয়েন্ট কোথায় অবস্থিত। যেই চাকা বদলাতে হবে সেই চাকার সবচাইতে কাছের জ্যাক পয়েন্টে জ্যাক স্থাপন করুন। জ্যাক স্থাপনের পরেই চাকা উঁচু করতে যাবেন না। এর আগে দেখে নিন আপনার গাড়ির চাকায় কোন হাব ক্যাপ আছে কিনা। হাব ক্যাপ থাকলে সেটি খুলে নিন এবং চাকার লাগ নাট স্ক্রু একটু ঢিলা করে নিন।। চাকা উঁচু করে ফেললে লাগ নাট ঢিলা কর বা খুলা সম্ভব না। লাগ নাট ঢিলা করার জন্য বা খুলার জন্য টায়ার আয়রন বা রেঞ্চ ব্যবহার করুন। লাগ নাট সম্পূর্ণ বিমুক্ত না করে ঢিলা করে সামান্য যুক্ত করে রাখুন। সবগুলো লাগ নাট ঢিলা করা হয়ে গেলে এবার আপনি আপনার গাড়িটিকে জ্যাক আপ বা উঁচু করবেন।

সঠিক উপায়ে লাগ নাট খুলুন

গাড়ির জ্যাক আপ পার্টসে চাপ দিয়ে গাড়ি একটু একটু করে উঁচু করতে থাকুন। গাড়ি ধীরে ধীরে উঁচু হতে থাকলে গাড়ির চাকাটি হালকা হয়ে সরে আসতে পারে। খেয়াল রাখবেন গাড়ির যেন স্থিতিশীল অবস্থায় থাকে। গাড়ি যথেষ্ট পরিমাণ উঁচু হয়ে গেলে চাকাটির লাগ বোল্টু গুলো খুলে ফেলুন এবং সতর্কতার সাথে চাকাটি বের করে আনুন। চাকা বের করার সময় চাকার নিচে পায়ের পাথা ঠেকিয়ে নিন। তাহলে চাকা খুলার সময় এটি ছিটকে পড়বে না। এবং ক্ষতিগ্রস্ত হবার কোন সম্ভাবনা থাকবে না।

এবার গাড়ির চাকা লাগানোর পালা

নষ্ট বা পাংচার হয়ে যাওয়া চাকাটি খুলে ফেলার পর, অতিরিক্ত বা স্পেয়ার চাকাটি জায়গা মত নিয়ে আসুন। চাকাটি বহির্মুখী দিক বাইরের দিকে রেখে , এবং নিচের দিকে পা দিয়ে একটু উঁচু করে যথা স্থানে লাগের সাথে চাকাটি যুক্ত করুন। চাকা লাগের সাথে ঠিকমতো লেগে গেছে কিনা চেক করে দেখুন। গাড়িতে রাবার হ্যামার থাকলে সেটি ব্যবহার করে চাকাটিকে লাগের সাথে নিবিড় ভাবে যুক্ত করুন। এবার লাগ বল্টু গুলো লাগ নাটের সাথে যুক্ত করুন।

থামুন… সবগুলো লাগ বল্টু এখনি টাইট করে ফেলবেন না।

টায়ারকে লাগের সাথে যুক্ত করে হাত দিয়ে যতটা পারা যায় চেপে ধরুন এবং হাত দিয়ে লাগ নাট টাইট দিন। হাত দিয়ে যতটুকু টাইট করা যায়, ততটুকু টাইট করা হয়ে গেলে গাড়ির জ্যাক ডাউন করে নিচে ভুমির সমতলে নিয়ে আসুন। এরপর টায়ার আয়রন বা রেঞ্চ দিয়ে প্রতিটি লাগ নাট টাইট দিন। লাগ নাট টাইট দেয়ার সময় ক্রিস-ক্রস উপায়ে টাইট দিন। মানে একটি লাগ-নাট টাইট দিয়ে, তার পাশের টা টাইট দিবেন না একটি নাট টাইট দেয়ার পরে তার সাথে আড়াআড়ি বিপরীত দিকে থাকা নাটটি টাইট দিবেন। এভাবে আড়াআড়ি ভাবে সবগুলো টাইট দেয়া হয়ে গেলে জ্যাক টুল এবং টায়ার আয়রন এবং অন্যান্য যন্ত্র সহ নষ্ট হয়ে যাওয়া চাকাটি গাড়ির ট্রাংকে তুলে রাখুন।

যাত্রা পথে গাড়ির উপর নজরদারি রাখতে ব্যবহার করুন ভেইকেল ট্র্যাকিং সিস্টেম প্রহরী। প্রহরী দেশি প্রযুক্তিতে তৈরি বাংলাদেশের একমাত্র ভেইকেল ট্র্যাকিং সিস্টেম। সর্বচ্চো ওয়ারেন্টি, মান সম্পন্ন ফিচার এবং দিন রাত ২৪ ঘন্টা কাস্টমার কেয়ার সার্ভিস সহ প্রহরী ভেইকেল ট্র্যাকিং সার্ভিস ব্যাবহার করে গাড়িকে রাখুন আপনার হাতের মুঠোয়।

    গাড়ির সুরক্ষায় প্রহরী সম্পর্কে জানতে

    Share your vote!


    এই লেখা নিয়ে আপনার অনুভূতি কী?
    • Fascinated
    • Happy
    • Sad
    • Angry
    • Bored
    • Afraid

    মন্তব্যসমূহ

    Scroll to Top