প্রহরী – Vehicle Tracking System (VTS) of Bangladesh

পড়তে লাগবে: 4 মিনিট

নিজে নিজেই গাড়ির এসি রিচার্জ করার পদ্ধতি।

আপনার গাড়ির এসি থেকে ঠাণ্ডা বাতাস বের হচ্ছে না? তাহলে সম্ভবত আপনার গাড়ির এসি রিচার্জ করার সময় হয়েছে। কিন্তু কোন মেকানিকের কাছে নিয়ে গেলে বা সার্ভিস সেন্টারে গেলে এই কাজের জন্য আপনাকে ব্যয় করতে হবে প্রায় ৫ থেকে ১০ হাজার টাকা। এসি রিচার্জের খরচ কিন্তু কম নয়। খরচ বাঁচাতে আপনি নিজেই আপনার গাড়ির এসি রিচার্জ করে নিতে পারেন।

প্রথমে যা করনীয়

গাড়ি’র এসি রিচার্জের জন্য আগে পরীক্ষা করে নিতে হবে আপনার গাড়ির এসিতে কী ধরণের রেফ্রিজারেন্ট ব্যবহার করা হয়। আপনার গাড়ি যদি ১৯৯৪ সালের আগের হয়ে থাকে তাহলে সেটি আর-১২ রেফ্রিজারেন্ট ব্যবহার করা হয়। এর পড়ে হলে আর-১৩৪ রেফ্রিজারেন্ট ব্যবহার করা হয়ে থাকে। এছাড়াও আপনার গাড়ির এসি সিস্টেমে কোন লিক আছে কিনা তাও পরীক্ষা করে নিন। লিক হওয়া এসি সিস্টেমের কারনে গাড়ির এসি যথেষ্ট ঠান্ডা বাতাস দিতে পারে না।

গাড়ির রেফ্রিজারেন্ট কিট কিনুন

এসি সিস্টেম রিচার্জ করার জন্য আপনাকে একটি এসি রেফ্রিজারেন্ট প্রচণ্ড চাপ দিয়ে সিস্টেমের মধ্যে প্রবেশ করাতে হবে। এর সাথে একটি প্রেশার মিটার কিনতে হবে, যার মাধ্যমে আপনি দেখতে পাবেন কতখানি রেফ্রিজারেন্ট সিস্টেমের মধ্যে ঢুকেছে। অনেক ধরণের রেফিরাজেন্ট কিট পাওয়া যায়, কিন্তু আপনার ব্যক্তিগত বা পারিবারিক গাড়ির জন্য একটি অল-ইন-ওয়ান রেফিরাজেন্ট কিট কিনে নিলেই সেটি আপনার জন্য ভাল হবে। এর মধ্যে একটি রেফিজারেন্ট সিলিন্ডারে সাথে একটি প্রেশার মিটারও দেয়া থাকে।

রিচার্জ কিট প্রস্তুত করুন

রিচার্জ কিন্ট কেনা হয়ে গেলে, কিটটি খুলুন। এতে একটি রেফ্রিজারেন্ট ক্যান, একটি প্রেশার মিটার এবং একটি ফ্লেক্সিবল রাবার হোস পাইপ পাবেন। প্যাকেটের ভেতরে মেনুয়াল দেখে প্রেশার মিটার এবং কিট নিয়ম অনুযায়ী বিন্যস্ত করুন। হোস পাইপটি প্রেশার মিটার মিটারের সাথে লাগানোর জন্য এর স্ক্রু ভালোভাবে আটকে নিন। রেফ্রিজারেন্ট কিটের পিনটি ঠিক আছে কিনা দেখে নিন।

রিচার্জ কিট লাগান

রিচার্জ কিটের পিন নিরাপদে খুলে ফেলুন এবং রিচার্জ কিটের সাথে প্রেশার মিটার যুক্ত করুন । এর সাথে রাবার হোস পাইপটিও টাইট করে যুক্ত করুন। এবার দেখুন প্রেশার মিটারের রিডিং সঠিক আছে কিনা। সঠিক রিডিং পাবার জন্য মিটারের কেলিব্রেশন ডায়ালটি ব্যবহার করুন।

গাড়ির লো প্রেশার পোর্ট নির্বাচন করুন

আপনার গাড়ির দুটি রেফ্রিজারেন্ট পোর্ট থাকে। একটি হাই প্রেশার পোর্ট, আরেকটি লো প্রেশার পোর্ট। গাড়ির রেফ্রিজারেন্টের লো প্রেশার পোর্ট খুঁজে বের করার জন্য গাড়ির ইউজার মেনুয়াল দেখে নিন। এছাড়াও প্রেশার পোর্টের উপরে এইচ এবং এল এর মাধ্যমে যথাক্রমে হাই এবং লো প্রেশার পোর্ট চিহ্নিত করা থাকে।

লো প্রেশার পোর্ট পরিষ্কার করুন

গাড়ির রেফ্রিজারেন্টের মধ্যে কোন ধুলাবালি বা ময়লা ঢুকলে গাড়ির এসি ঠিক মত কাজ করবে না। কম্প্রেশারের মধ্যে ময়লা গেলে তা একেবারে বিকলও হয়ে যেতে পারে। তাই লো প্রেশার পোর্টের ক্যাপ খুলার আগে এবং পরে পোর্টের মাথা ভালোভাবে পরিষ্কার করে নিন।

প্রেশার পরিমাপ করুন

প্রেশার পরিমাপের জন্য রেফ্রিজারেন্ট কিটের প্রেশার মিটারটি হোস পাইপের সাথে ভালোভাবে যুক্ত করে নিন। এরপর রাবার হোস পাইপের খোলা অংশ গাড়ির লো প্রেশার পোর্টের মুখে লাগিয়ে দিন। এবার গাড়ির ইঞ্জিন স্টার্ট দিয়ে পুরো মাত্রায় এসি অন করে দিন। এবার প্রেশার মিটারে দেখুন সিস্টেমের প্রেশার কি পরিমাণ আছে। সঠিক রিডিং পাওয়ার জন্য কয়েক মিনিট অপেক্ষা করুন।

রেফ্রিজারেন্ট ক্যান যুক্ত করুন

এবার রেফ্রিজারেন্ট কিটের মেনুয়ালের মধ্যে দেখানো উপায়ে প্রেশার মিটারের সাথে রেফ্রিজারেন্ট ক্যান যুক্ত করুন। আগে লো প্রেশার পোর্ট থেকে হোস পাইপটি খুলে নিবেন। এবার প্রশার মিটার ডান দিকে ঘুরান। তাহলে ক্যান থেকে প্রেশার মুক্ত হবার শব্দ শুনতে পাবেন।

রেফ্রিজারেন্ট যুক্ত করু

 

প্রেশার মিটারের সাথে রেফ্রিজারেন্ট ক্যান যুক্ত করা হয়ে গেলে রাবার হোস পাইপের মাথাটি আবারো লো প্রেশার পোর্টের সাথে যুক্ত করুন। ইঞ্জিন অন করে আবারো সর্বোচ্চ মাত্রায় এসি চালিয়ে দিন। প্রেশার তৈরি হবার জন্য কিছুক্ষণ অপেক্ষা করুন। এবার রেফ্রিজারেন্ট ক্যানটি চিত্রে দেখানো উপায়ে একবার ডানে একবার বামে ঘুরাতে থাকুক যাতে করে রেফ্রিজারেন্ট আপনার গাড়ির এসি সিস্টেমের মধ্যে প্রবেশ করতে পারে। এর সাথে সাথে প্রেশার মিটারে নজর রাখুন।

রেফ্রিজারেন্ট দিয়ে রিচার্জ করুন

রেফ্রিজারেন্ট যুক্ত করার সময় মিটার থেকে দেখে নিন কতখানি রেফ্রিজারেন্ট সিস্টেমে ভরা হয়েছে। কিছু কম বেশি হলে কোন সমস্যা নেই। রেফ্রিজারেন্ট পূর্ণ করা হয়ে গেলে রাবার হোস প্রেশার পোর্ট থেকে খুলে তাতে ক্যাপ লাগিয়ে দিন। রেফ্রিজারেন্ট ক্যান খালি হয়ে গেলেও প্রেশার মিটার যত্নে রাখুন। পরেরবার আর প্রেশার মিটার না কিনে শুধু রেফ্রিজারেন্ট ক্যান কিনেই নিজে নিজে এসি রিচার্জ করতে পারবেন।

আপনার অবর্তমানে গাড়িতে শুধুশুধু এসি চলছে কিনা দেখতে চান? তাহলে ব্যাবহার করুন প্রহরী ভেইকেল ট্র্যাকার। এসি অন অফ নোটিফিকেশনের মাধ্যমে মোবাইলেই দেখা যাবে গাড়িতে এসি চলছে নাকি বন্ধ আছে। এছাড়াও প্রহরীর রয়েছে ২০টির ও বেশি ফিচার। গাড়ির সব খবরাখবর দেখতে পাবেন যখন তখন যেখান থেকে খুশি!

    গাড়ির সুরক্ষায় প্রহরী সম্পর্কে জানতে

    Share your vote!


    এই লেখা নিয়ে আপনার অনুভূতি কী?
    • Fascinated
    • Happy
    • Sad
    • Angry
    • Bored
    • Afraid

    মন্তব্যসমূহ

    Scroll to Top